Pages

মুহাম্মদ - ক্যারেন আর্মস্ট্রং

amarboi

মুহাম্মদ - ক্যারেন আর্মস্ট্রং
অনুবাদ শওকত হোসেন

৬১০ সালের দিকে রমযান মাসে হিজাজের মক্কা নগরীতে এক আরব বণিক শেষপর্যন্ত পৃথিবীর ইতিহাসের চাকা ঘুরিয়ে দেওয়া অভিজ্ঞতা লাভ করেন। ইনিই মুহাম্মদ ইবন আবদুল্লাহ যাঁর মাধ্যমে ইসলাম ধর্মের আবির্ভাব। আরবে তখন চলছিল জাহেলিয়া বা অজ্ঞতার যুগ : পারস্পরিক হানাহানিতে লিপ্ত ছিল বিভিন্ন গোত্র। দুর্বল অসহায়েরা আগ্রাসী পুঁজিবাদের অধীনে শোষিত হচ্ছিল। এক ধরনের আধ্যাত্নিক অস্থিরতা গোটা আরব বিশ্বকে কুরে ‍কুরে খাচ্ছিল। এমনি পরিস্থিতিতে শান্তি ও সমন্ভয়ের ধর্ম ইসলামের বাণী প্রচারের দায়িত্ব পান মুহাম্মদ (স) । প্রায় একক প্রয়াসে ঐ অঞ্চলে শান্তি ফিরিয়ে এনেছিলেন তিনি, প্রতিষ্ঠা করেছিলেন এক নতুন আদর্শের। কিন্তু মোটেই সহজ ছিলো না এ কাজ। ঘরে-বাইরে অসংখ্য বাধা-বিপত্তির মোকাবিলা করতে হয়েছে তাঁকে। মুহাম্মদের (স) সেই অসাধারণ জীবন কাহিনী তুলে ধরেছেন ক্যারেন আর্মস্ট্রং তাঁর মুহাম্মদ : আ বায়োগ্রাফি অভ দ্য প্রফেট গ্রন্থে। মহানবীর (স) আবির্ভাবের কারণ বিশ্লেষণ করেছেন তিনি, সেই সাথে তুলে ধরেছেন বর্তমান বিশ্বে ইসলামের নামে গড়ে ওঠা বিভিন্ন মৌলবাদী গোষ্ঠীর কর্মকাণ্ডের ধর্মের মৌল বিষয়ের বিরোধিতার দিকটি ; আধুনিক বিশ্বের প্রেক্ষাটটে ইসলামকে অনুসরণ করার গুরুত্ব ব্যাখ্যা দিয়েছেন ।এই গ্রন্থে মহানবীর (স) জীবনের প্রতিটি পর্যায় যুক্তির আলোয় এমনভাবে তুলে ধরা হয়েছে যার ফলে এটি মুসলিম তো বটেই, অন্যান্য ধর্মাবলম্বীর কাছেও প্রয়োজনীয় বিবেচিত হচ্ছে।

সূচি
১. প্রতিপক্ষ মুহাম্মদ
২. মুহাম্মদ, আল্লাহর দূত
৩. জাহিলিয়া
৪. প্রত্যাদেশ
৫. সতর্ককারী
৬. দ্য স্যাটানিক ভার্সেস
৭. হিজরা : নতুন দিক নির্দেশনা
৮. পবিত্র যুদ্ধ
৯. পবিত্র শান্তি
১০. পয়গম্বরের পরলোকগমন?


বই নিয়ে শুধুমাত্র বই নিয়েই আমাদের এই প্রয়াস। ধ্বংস ও ধসের সামনে বই সবচেয়ে বড় প্রতিরোধ। বই আমাদের মৌলিক চিন্তাভাবনার শাণিত অস্ত্র। বইয়ের অস্তিত্ব নিয়ে চারিদিকে আশঙ্কা, বই নিয়ে শুধু মাত্র বই নিয়েই আমাদের এই প্রয়াস। ধ্বংস ও ধসের সামনে বই সবচেয়ে বড় প্রতিরোধ। বই আমাদের মৌলিক চিন্তাভাবনার শাণিত অস্ত্র। বইয়ের অস্তিত্ব নিয়ে চারিদিকে আশঙ্কা, নতুন প্রজন্ম চকঝমকের আকর্ষণে বইয়ের দিক থেকে ঘুরিয়ে নিচ্ছে মুখ। আমাদের এ আয়োজন বইয়ের সাথে মানুষের সম্পর্ককে অনিঃশেষ ও অবিচ্ছিন্ন করে রাখা। আশাকরি আপনাদের সহযোগিতায় আমাদের এই ইচ্ছা আরোও দৃঢ় হবে। দুনিয়ার পাঠক এক হও! বাংলা বই বিশ্বের বিবিধ স্থানে, সকল বাংলাভাষীর কাছে সহজলভ্য হোক!