সাম্প্রতিক বইসমূহ
Showing posts with label আখতারুজ্জামান ইলিয়াস. Show all posts
Showing posts with label আখতারুজ্জামান ইলিয়াস. Show all posts

আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের সাহিত্যে জীবন ও সমকাল - করুণা রাণী সাহা

আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের সাহিত্যে জীবন ও সমকাল - করুণা রাণী সাহা আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের সাহিত্যে জীবন ও সমকাল - করুণা রাণী সাহা
আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের সাহিত্যে জীবন ও সমকাল
আখতারুজ্জামান ইলিয়াস বাংলা সাহিত্যের একজন প্রতিশ্রুতিশীল লেখক । বিশ শতকের ষাটের দশকের জাতীয়তাবাদী চেতনা ও স্বাধিকার আন্দোলনের পটভূমিকায় সাহিত্যের ক্ষেত্রে আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের আবির্ভাব। জীবন ও সমাজ অনুসন্ধানের নিরীক্ষাধর্মী শৈল্পিক মনস্তত্ত্বে অবগাহন করে ঐ সময়ের ও স্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশের সামাজিক ও রাজনৈতিক জীবন প্রাবাহকে ধারণ করে তিনি সাহিত্য রচনা করেন। কবি হিসেবে সাহিত্য অঙ্গনে তার পদচারণা হলেও মানুষের দ্বন্দ্ব-সংঘাতময় জীবন এবং সমাজের বিভাজিত মানুষের শক্তি, সাহস ও দুর্বলতাকে উপজীব্য করে প্রচলিত সাহিত্যের মৌলধারায় পরিবর্তন এনে আখতারুজ্জামান ইলিয়াস গল্প-উপন্যাস প্রবন্ধ রচনা করেন। গভীর জীবনবোধ তার সাহিত্যের ভিত্তি। এই বাস্তববাদী কথাশিল্পীর গল্প-উপন্যাসের ভাবনা সমকাল। সমকালীন, রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে পরিবর্তনশীল বাস্ততাকে তিনি তার গল্পে উপস্থাপন করেছেন। তার কথাসাহিত্যের কাহিনী ও চরিত্রে আছে সুগভীর অন্তদৃষ্টি ও পর্যবেক্ষণ শক্তি। আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের চেতনা ও সৃষ্টিতে রয়েছে আধুনিক সমাজচিন্তা ও জীবনজিজ্ঞাসা । কোন বিষয়কে তিনি সমগ্রতায় দেখে নিজের বিশ্বাসকে সাহিত্যে তুলে ধরেছেন। গল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধে তিনি মধ্যবিত্ত বাঙালির জীবনাচরণ অন্বেষণ করেছেন। সমাজ-সংস্কৃতিতে বাঙালির অবস্থান, ইতিহাসে বাঙালির স্থান, মধ্যবিত্ত শ্রেণির উত্থান, শ্রমজীবী মানুষের সংযোজন করেছেন। গুরু-গম্ভীর বিষয়কে তিনি সহজ করে কথকতার ভঙ্গিতে বলেছেন, যা পাঠকের চিন্তা-ভাবনাকে আলোড়িত করে। রাজনীতি-অর্থনীতিসংস্কৃতি সব আলোচনাতেই ইলিয়াসের কাছে গুরুত্ব পেয়েছে ব্যক্তি। কেননা ক্রমবিকাশ। তার মনের ক্ষোভ ও দ্রোহ কখনো সোজা কথায়, কখনোবা বাকা কথায় সাহিত্যে প্রকাশ পেয়েছে। আধুনিকতার সংজ্ঞা, বৈশিষ্ট্য, ব্যবহার ও তার প্রয়োজনীয়তাকে তিনি তার সৃষ্ট সাহিত্যে উপস্থাপন করেছেন।
খুব কম সংখ্যক গ্রন্থ রচনা করেও শুধু মাত্র বিশিষ্টতার গুণে সাহিত্যে আখতারুজ্জামান ইলিয়াস মর্যাদাপূর্ণ আসন লাভ করেছেন। তার রচিত সাহিত্য থেকে জানা যায় দেশের সমাজ, ঐতিহ্য ও ইতিহাস। প্রখর সমাজসচেতন এ লেখকের দুর্লভ কথাসাহিত্যের মূল্যায়ণের জন্য করে বর্তমান ও আগামী প্রজন্ম এই ব্যতিক্রমী সাহিত্যিকের সাহিত্য, মানবসত্তার জটিল ও কুটিল স্বরূপকে উপলব্ধি করতে পারে। আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের সাহিত্যকর্ম নিয়ে দেশের অনেক বিশিষ্ট প্রথিতযশা সাহিত্যিক আলোচনা-সমালোচনামূলক প্রবন্ধ-গ্রন্থ লিখেছেন। এই সাহিত্যিকের এক গুণমুগ্ধ পাঠক হিসেবে তার স্বতন্ত্র্য, ব্যতিক্রমধর্মী ও জীবনধর্মী সাহিত্যকে জানার আকাজক্ষায় অধ্যয়ন করি তার গল্প-উপন্যাস ও প্রবন্ধ । মধ্যবিত্তের আত্মবিশ্লেষণ ও আত্মরূপান্তরের স্বরূপ অন্বেষণে আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের প্রবণতায় আকৃষ্ট হয়ে এই সমাজ-সচেতন বাস্তববাদী লেখকের জীবন ও সাহিত্য জানার আকাঙ্ক্ষায় এই গ্রন্থ রচনার প্রচেষ্টা। অনাহার, অভাব, দারিদ্র ও শোষণের শিকার হয়ে যারা সমাজে মানবেতর জীবন-যাপন করে তাদের প্রতি লেখকের সহানুভূতি তরুণ সমাজকে উদ্দীপ্ত করবে। নতুন প্রজন্ম জানবে- ফকির-সন্ন্যাসী বিদ্রোহ, তেভাগা আন্দোলন ও সমাজে তার ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া, পঞ্চাশের মম্বন্তর, পাকিস্তান আন্দোলন, দেশভাগ, দেশ-ত্যাগ, উদ্বাস্তু সমস্যা ও সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার ভয়াবহতা । বিশেষ সতর্কতা সত্ত্বেও এই বইয়ে যে ভুল ক্রুটি রয়ে গেল সে দায়ভার আমার। আমার এ উদ্যোগে যে সব গ্রন্থ ও পত্র-পত্রিকার সাহায্য নিয়েছি, সে সব গ্রন্থ ও প্রবন্ধের বিজ্ঞ, বিদগ্ধ সৃজনশীল লেখকদের আমি কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করি। আমার পরিবারের সবাই আমার সব কাজের সহযোগী, তাদের অনুপ্রেরণায় আমি লিখতে উৎসাহিত হই। বিভাস প্রকাশনার স্বত্ত্বাধিকারী রামশংকর দেবনাথকে ধন্যবাদ, আন্তরিক আগ্রহ নিয়ে তিনি বইটি প্রকাশ করায়। পাঠকের ভালো ও শিক্ষার্থীদের সামান্য কাজে লাগলে কৃতাৰ্থ হবো।
বিনীত
করুণা রানী সাহা

Download Link
This is the largest online Bengali books reading library. In this site, you can read old Bengali books pdf. Also, Bengali ghost story books pdf free download. We have a collection of best Bengali books to read. We do provide kindle Bengali books free. We have the best Bengali books of all time. We hope you enjoy Bengali books online free reading.

আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের ডায়েরি - শাহাদুজ্জামান

amarboi.comআখতারুজ্জামান ইলিয়াস (১৯৪৩-৯৬) আমাদের প্রধান কথাসাহিত্যিক। শুধু আমাদের নয়, সমগ্র বাংলা সাহিত্যের প্রেক্ষাপটে যদি বিবেচনা করি, তাহলে তিন বন্দ্যোপাধ্যায়ের পর সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ্র পাশাপাশি তাঁর নাম সর্বাগ্রে উচ্চারণ করতে হবে। বাংলা কথাসাহিত্যে তাঁর স্থান এখন প্রায় শীর্ষে। অথচ ভাবতে অবাক লাগে, কটা উপন্যাস আর গল্পই-বা লিখেছিলেন তিনি? উপন্যাসের সংখ্যা মাত্র দুটি, গল্পের সংখ্যা সবমিলিয়ে ২৭/২৮টি। এর বাইরে ইলিয়াসের আছে একটি প্রবন্ধ সংকলন আর কিছু কবিতা। সবমিলিয়ে তাঁকে স্বল্পপ্রসূ লেখকই বলা যায়। কিন্তু সংখ্যায় নয়, গুণগত বিচারে তিনি সবাইকে প্রায় ছাড়িয়ে গেছেন। উপন্যাস রচনায় সমকালে তাঁর সমতুল্য একজন লেখককেও খুঁজে পাওয়া যাবে না- কী বাংলাদেশে, কী পশ্চিমবঙ্গে। গল্প রচনাতেও তিনি প্রথাগত পথ পরিত্যাগ করে একেবারেই নিজস্ব একটি ঘরানা তৈরি করে নিয়েছিলেন। সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে শাহাদুজ্জামান সম্পাদিত আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের একটি ডায়েরি।





Akhteruzzaman Eliaser Diary - Edited by Shahaduzzaman
This is the largest online Bengali books reading library. In this site, you can read old Bengali books pdf. Also, Bengali ghost story books pdf free download. We have a collection of best Bengali books to read. We do provide kindle Bengali books free. We have the best Bengali books of all time. We hope you enjoy Bengali books online free reading.

চিলেকোঠার সেপাই - আখতারুজ্জামান ইলিয়াস

চিলেকোঠার সেপাই - আখতারুজ্জামান ইলিয়াস

চিলেকোঠার সেপাই
আখতারুজ্জামান ইলিয়াস

১৯৬৯ সালের পূর্ব বাংলা। কী এক জীবনস্পর্ধী মন্ত্রের মুখে বিস্ফোরিত চারদিক। কেঁপে ওঠে নগর ঢাকা। কাঁপে শহর, বন্দর, গঞ্জ, নিভৃত গ্রাম, এমনকি যমুনার দুর্গম চর এলাকা। কখনো কঠিন বুলেটের আঘাতে, কখনো ঘুম-ভেঙ্গে-দেওয়া আঁধির ঝাপটায়। মিটিং আর মিছিল আর গুলিবর্ষণ আর কারফ্যু-ভাঙ্গা আর গণআদালত - সব জায়গায় ফেটে পড়ে ক্ষোভ ও বিদ্রোহ। সব মানুষেরই হৃদয়ের অভিষেক ঘটে একটি অবিচল লক্ষ্যে - মুক্তি। মুক্তি? তার আসার পথও যে একরকম নয়। কারো স্লোগান, ‘দিকে দিকে আগুন জ্বালো’, কারো ‘পদ্মা মেঘনা যমুনা’।
আরোপ করা সামরিক শাসনের নির্যাতন শুরু হলে বন্ধুরা যখন বিহ্বল, ওসমানের ডানায় তখন লাগে প্রবল বেগ। সহনামী কিশোরকে সে চুম্বনে রক্তাক্ত করে, বিকৃত যৌনতার বশে নয়, আত্মপ্রেমে পরাজিত হয়ে। ওসমান ‘একজন’।
সে এক নার্সিসাস। কিন্তু এখানে তার শেষ নয়। নিজের খাঁচা থেকে বেরুবার জন্য তার ডানা ঝাপটানো পরিণত হয় প্রচন্ড ক্রোধে। রঞ্জুকে ছাদ থেকে নিচে ফেলে দেওয়ার জন্য সে প্রানান্ত উদ্যোগ নেয়। এ কি তার আত্মপ্রেম বিসর্জনের প্রস্তুতি? পরিচিত সবাই ওসমানকে চিহ্নিত করে বদ্ধ পাগল হিসেবে। অনুরাগী বন্ধুরা তাকে বন্দী করে রাখে নিজের ঘরে। এখন এই বিচ্ছিন্ন ঘর থেকে ওসমানকে উদ্ধার করতে পারে কে? এক-নেতায় বিশ্বাসী আলাউদ্দিন? ভোটের রাইট-প্রার্থী আলতাফ? রাজনীতি-বিশ্লেষক বামপন্থী আনোয়ার? - না এরা কেউ নয়। চিলেকোঠার দুর্গ থেকে ওসমানকে বেরিয়ে পড়তে প্ররোচনা দে হাড্ডি খিজির যে নিজের বাপের নাম জানে না, যে বড় হয়েছে রাস্তায় রাস্তায়, যার মা বৌ দুজনেই মহাজনের ভোগ্য এবং গণঅভ্যুত্থানের সদস্য হওয়ার অপরাধে মধ্যরাতে কারফ্যু-চাপা রাস্তায় যে প্রাণদন্ডে দন্ডিত হয় মিলিটারির হাতে। নিহত খিজিরের আমন্ত্রণে ও আহ্বানে সক্রিয় সাড়া দিয়ে ওসমান ঘরের তালা ভাঙে। সবার অগোচরে সে বেরিয়ে আসে রাস্তায়, কারফ্যুর দাপট অগ্রাহ্য করে। তার সামনে এখন অজস্র পথ। পূর্ব পশ্চিম উত্তর দক্ষিণ - সব দিক তার খোলা। ওসমান যেদিকেই পা বাড়ায় সেদিকেই পূর্ব বাঙলা।
This is the largest online Bengali books reading library. In this site, you can read old Bengali books pdf. Also, Bengali ghost story books pdf free download. We have a collection of best Bengali books to read. We do provide kindle Bengali books free. We have the best Bengali books of all time. We hope you enjoy Bengali books online free reading.

খোয়াবনামা - আখতারুজ্জামান ইলিয়াস

amarboi.comখোয়াবনামা - আখতারুজ্জামান ইলিয়াস




আখতারুজ্জামান ইলিয়াস শুধু বাংলাদেশের কথাসাহিত্যেই নয়, সমগ্র বাংলাসাহিত্যেরই একজন অগ্রগণ্য কথাসাহিত্যিক৷ তিনি কখনোই লেখার সংখ্যা বৃদ্ধিতে মনোযোগী ছিলেন না৷ ভিন্ন আঙ্গিক ও প্রকরণে মনোযোগী এ লেখক তাই খুব বেশি লেখেননি জীবনে৷ কিন্তু যা লিখেছেন শিল্প-বিচারে তা এখনও বিশ্বমানের, এমনটিই মনে করেন সাহিত্যের বিদগ্ধ সমালোচকেরা৷ জীবনের গভীরতম শাঁস পর্যনত্ম অশেষ কৌতূহল নিয়ে পর্যবেক্ষণ করে শিল্পকর্মে তা দ্বিধাহীন প্রকাশ করার বিরল ক্ষমতা যাঁর লেখায় পাওয়া যায় তিনিই কথাসাহিত্যিকআখতারুজ্জামান ইলিয়াস৷ যদিও প্রকৃতি তাঁকে এই বিশ্ব পর্যবেক্ষণ ও উপলব্ধির জন্য বেশি সময় দেয়নি৷ হয়ত সেজন্যই এই নাজুক ও স্বল্পায়ু সময়ে তিনি মর্মভেদী দৃষ্টিকে শাণিত করে দেখেছেন তাঁর চেনা বিশ্বকে৷ যাপিতজীবনের বাহিরেও যে আরো কিছু দেখবার ও বুঝবার দিক আছে তা আমরা ইলিয়াসের গল্প ও উপন্যাস পড়ে আবিষ্কার করতে পারি৷ তাঁর লেখায় আমরা পাই গভীর জীবনবোধ ও তীক্ষ্ণ হাস্যকৌতুকের সাক্ষাত্‍৷ সাধারণ নিম্নবর্ণের মানুষের মুখের ভাষাও তাঁর রচনায় মর্যাদা পায়৷ লেখায় তিনি শুধু গল্প বলেন না, পাঠককে ভেতর থেকে নাড়া দেন, ঝাঁকুনি দিয়ে জাগিয়েও রাখেন৷
১৯৯৪ সালে দৈনিক জনকন্ঠ-এর সাহিত্যপাতায় ইলিয়াসের উপন্যাসখোয়াবনামা ধারাবাহিকভাবে ছাপা হতে শুরু হয়৷ যদিও পুরো উপন্যাস প্রকাশিত হওয়ার আগেজনকন্ঠ কর্তৃপক্ষ রাজনৈতিক কারণে খোয়াবনামা ছাপা বন্ধ করে দেয়৷
১৯৯৫ সালের ফেবু্রয়ারি মাসে স্ত্রীর চিকিত্‍সার উদ্দেশ্যে তিনি সস্ত্রীক কলকাতায় যান এবং শান্তিনিকেতন ভ্রমণ করেন৷ অক্টোবরে মাকে হারান ইলিয়াস৷ মায়ের মৃত্যুর পর পরই ইলিয়াস অসুস্থ হয়ে পড়েন৷ পায়ের তীব্র ব্যথা উপেক্ষা করে তখন দিনরাত খোয়াবনামা লিখছিলেন৷ ক্যান্সারকে বাত ভেবে ডাক্তাররা তখন ভুল চিকিত্‍সা দিচ্ছিলেন ইলিয়াসকে৷ প্রচন্ড পায়ের ব্যথা নিয়েই তিনি খোয়াবনামা উপন্যাসটি লেখা শেষ করেন ৩১ ডিসেম্বর৷ ১৯৯৬ সালে ১৩ জানুয়ারি তাঁর পায়ের হাড়ে ধরা পড়ে ক্যান্সার৷ ক্যান্সারের কারণে ২০ মার্চ তাঁর ডান পা সম্পূর্ণ কেটে ফেলা হয়৷ এবছর বই আকারে প্রকাশিত হয় তাঁর কালজয়ী উপন্যাস খোয়াবনামা৷
১৯৭৭ সাল ছিল ইলিয়াসের জন্য স্মরণীয়৷ কারণ জীবনের প্রথম পুরস্কার হুমায়ুন কবির স্মৃতি পুরস্কারে ভূষিত হন তিনি এই সালে৷ বাংলাদেশ লেখক শিবির সংঘ তাঁকে এই পুরস্কারে ভূষিত করেন ৷ এরপর ১৯৮৩ সালেইলিয়াস বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার লাভ করেন৷ ১৯৮৭ সালে তিনি আলাওল সাহিত্য পুরস্কার অর্জন করেন৷ ১৯৯৬ সালের এপ্রিল মাসে খোয়াবনামার জন্য পান প্রফুল্ল কুমার সরকার স্মৃতি আনন্দ পুরস্কার এবং সাদাত আলী আকন্দ পুরস্কার৷ এবছর কাজী মাহবুবউল্লাহ স্বর্ণপদক নামে আরেকটি পুরষ্কার পান তিনি ৷
১৯৯৭ সালের ৪ জানুয়ারি৷ পাখিডাকা সিগ্ধ ভোর৷ ঢাকার মালিবাগ কমিউনিটি হাসপাতালের ডাক্তার-নার্সদের সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে কালজয়ী এ লেখক পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চলে যান৷ তাঁর মৃত্যুর পর তত্‍কালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজিমপুরে তাঁর বাসভবনে গিয়ে শোক প্রকাশ করেন৷ ওই দিন বিকালেই ইলিয়াসের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় বগুড়ার জ্বলেশ্বরীতলার বাসায়৷ তাঁর শেষ ইচ্ছানুযায়ী মৃত্যুর পরের দিন বগুড়া শহরের দক্ষিণ বগুড়া গোরস্থানে বাবা-মায়ের কবরের পাশে তাঁকে সমাহিত করা হয়৷ সেদিন থেকে বাংলা সাহিত্যের মনোযোগী পাঠকরা হারান একজন জীবনঘনিষ্ঠ কথাসাহিত্যিক আখতারুজ্জামান ইলিয়াসকে৷ নিজের সম্পর্কে যিনি বলতেন,' আমি চব্বিশ ঘন্টার লেখক...'৷
আমার বই ডট কম ধারাবাহিক ভাবে আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের সব রচনাই প্রকাশ করবে। আজ প্রকাশিত হল “খোয়াবনামা”।

This is the largest online Bengali books reading library. In this site, you can read old Bengali books pdf. Also, Bengali ghost story books pdf free download. We have a collection of best Bengali books to read. We do provide kindle Bengali books free. We have the best Bengali books of all time. We hope you enjoy Bengali books online free reading.

চিলেকোঠার সেপাই - আখতারুজ্জামান ইলিয়াস (বাংলা ইপাব)

চিলেকোঠার সেপাই চিলেকোঠার সেপাই
আখতারুজ্জামান ইলিয়াস

eBook Created By : Sisir Suvro




উপন্যাস সংক্ষেপ: রঞ্জু এই উপন্যাসের প্রধান চরিত্র। অন্যান্য প্রধান তিনটি চরিত্র ওসমান, আনোয়ার এবং হাড্ডি খিজির। এই উপন্যাসে একদিকে হাড্ডি খিজির যেমন মহাজনের বিরুদ্ধে শ্লোগান দিয়ে উঠতি আওয়ামী লীগের নেতা আলাউদ্দিন মিয়ার ধমক খায়, গ্রামে গ্রামে গরুচোরদের রক্ষাকর্তা জোতদারদের রক্ষায় রাষ্ট্র-সামরিক বাহিনী-আওয়ামী রাজনীতি একাকার হয়ে যায়। ঢাকা ক্লাব থেকে আইয়ুব বিরোধী মিছিলে গুলি বর্ষণ করা হলে উত্তেজিত জনতা ক্লাবটিতে আগুন ধরাতে যায়, আর বাঙালি-বাঙালি ভাই ভাই আওয়াজ তুলে তাদেরকে রক্ষা করা হয়। গ্রামে জোতদারদের বিরুদ্ধে স্বতঃস্ফূর্ত মানুষের গণআদালতেও আইয়ুবের দালালরা রক্ষা পায় জাতীয়তাবাদী রাজনীতির ছায়ায়। এই দালালদের বুদ্ধিমান অংশ অচিরেই যোগ দিয়ে জাতীয়তাবাদী রাজনীতিকে আরও পুষ্ট করে। ওদিকে ওসমান তার মধ্যবিত্ত দোদুল্যমানতা আর জনগণের সাথে মিলনের আকাঙ্ক্ষায় মাঝে দোল খায়, এ্‌ই দোলাচল তাকে পরিণত করে সিজোফ্রেনিয়ার রোগীতে। মধ্যবিত্ত বামপন্থী আনোয়ার গ্রামে যায় কৃষিবিপ্লব সাধন করতে, এবং নতুন কোনো উপলব্ধি ছাড়াই এই প্রক্রিয়ার ভেতর তার ভূমিকা পালন করে যায়।


Download : বইটিতে প্রচুর বানান ভুল থাকায়, ডাউনলোড লিঙ্ক উঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।
This is the largest online Bengali books reading library. In this site, you can read old Bengali books pdf. Also, Bengali ghost story books pdf free download. We have a collection of best Bengali books to read. We do provide kindle Bengali books free. We have the best Bengali books of all time. We hope you enjoy Bengali books online free reading.

সংস্কৃতির ভাঙা সেতু - আখতারুজ্জামান ইলিয়াস

Sanskritir Bhanga Setu - Akhtaruzzaman Eliasসংস্কৃতির ভাঙা সেতু - আখতারুজ্জামান ইলিয়াস
কথাশিল্পী হিসেবে আখতারুজ্জামান ইলিয়াস তাঁর জীবনকালেই সমকালীন বাংলা সাহিত্যের এক মর্যাদার আসন করে নিয়েছিলেন। কিন্তু যাকে বলে বিশুদ্ধ মমনচর্চার ক্ষেত্রে সেই প্রবন্ধসাহিত্যেও তাঁর শিখরস্পর্শী সাফল্য সম্পর্কে আমরা অনেকেই হয়ত সেভাবে অবহিত নই।মৃত্যুর পরে প্রকাশিত তাঁর এই একমাত্র প্রবন্ধগ্রন্থ সংস্কৃতির ভাঙা সেতু-তে পাঠক তাঁর প্রতিভার সেই অন্যদিকটির সঙ্গে পরিচিত হতে পারবেন। গল্প-উপন্যাসের মতো এক্ষেত্রেও তিনি ছিলেন এক স্বল্পপ্রজ লেখক।আবার তাঁর সৃষ্ট কথাসাহিত্যের মতোই প্রবন্ধগুলোও তাঁর গভীর জীবনবোধ, বিষয়কে তার সমগ্রতায় দেখার চোখ এবং শিল্পীর দায়বদ্ধতায় তাঁর বিশ্বাসকে তুলে ধরে।লেখক বা সংস্কৃতিকর্মীর দায়িত্ব, উপন্যাসে সমাজ বাস্তবতা, বাংলাদেশে প্রাথমিক শিক্ষার সমস্যা, মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের শিল্পদৃষ্টি, বুলবুল চৌধুরীর প্রতিভা, রবীন্দ্র সঙ্গীতের শক্তি, সূর্যদীঘল বাড়ি বা গান্ধী চলচ্চিত্র, ছোটগল্পের ভবিষ্যৎ কিংবা কায়েস আহমেদ বা অভিজিৎ সেনের মতো কথা বলুন না কেন? তাঁর সুগভীর অন্তর্দৃষ্টি, তীক্ষ্ণ পর্যবেক্ষণ শক্তি ও অনুপুঙ্খ বিশ্লেষণ ক্ষমতা আমাদেরকে বিস্ময়-বিমুগ্ধ করে। এমনকি যেখানে আমরা তাঁর সঙ্গে একমত নই সেখানও তাঁর প্রতি শ্রদ্ধাশীল না হয়ে আমরা পারি না। তাঁর গল্প-উপন্যাসের মতোই প্রবন্ধগুলোও হয়ত একটানে পড়া যায় না। ভাবতে-ভাবতে পড়তে হয়, আবার পড়তে পড়তে থমকে ভাবতে হয়। কখনো তা পাঠককে ঝাঁকুনি দিয়ে নিজের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দেয়। ‘জীবনযাপনের মধ্যে মানুষের গোটা সত্তাটিকে’ প্রকাশের যে দায়িত্বের কথা ইলিয়াস বলেছেন ‘চিলেকোঠার সেপাই’বা ‘খোয়াবনামা’র পেছনে তাদের স্রষ্টার সে নিখাদ দায়বোধ ও দীর্ঘ মানসিক প্রস্তুতির চিনে নিতেও প্রবন্ধগুলো আমাদের সাহায্য করে।
সূচিপত্র
*সংস্কৃতির ভাঙা সেতু
উপন্যাস ও সমাজবাস্তবতা
*সংশয়ের পক্ষে
*মাণিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাগী চোখের স্বপ্ন
*বাংলা ছোটগল্প কি মরে যাচ্ছে?
*রবীন্দ্রসংগীতের শক্তি
*বুলবুল চৌধুরী
*শওকত ওসমানের প্রভাব ও প্রস্তুতি
*স্মৃতির শহরে কবির জাগরণ
*ক্ষুদ্ধ শহীদ ক্লান্ত শহীদ
*আসহাউদ্দীন আহমেদের ক্রোধ ও কৌতক
*কৌতুকে ক্রোধের শক্তি
*জতুগৃহে দিনযাপন
*মরিবার হ’লো তার সাধ
*প্রসঙ্গ : সূর্যদীঘল বাড়ি
*অভিজিৎ সেনের হাড়তরঙ্গ
*লেখকের দায়
*সায়েবদের গান্ধি
*গুণ্টাগ্রাস ও আমাদের গ্যাস্ট্রিক আলসার
*সমাজের হাতে ও রাষ্ট্রের খাতে প্রাথমিক শিক্ষা
*একুশে ফেব্রুয়ারির উত্তাপ ও গতি
*চাকমা উপন্যাস চাই
Download
Sanskritir Bhanga Setu - Akhtaruzzaman Elias |PDF|29 MB|
This is the largest online Bengali books reading library. In this site, you can read old Bengali books pdf. Also, Bengali ghost story books pdf free download. We have a collection of best Bengali books to read. We do provide kindle Bengali books free. We have the best Bengali books of all time. We hope you enjoy Bengali books online free reading.

রচনাসমগ্র ০১ - আখতারুজ্জামান ইলিয়াস

Rachanasamagra 01 - Akhtaruzzaman Elias in pdfরচনাসমগ্র ০১ - আখতারুজ্জামান ইলিয়াস
আখতারুজ্জামান ইলিয়াস-বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বল এক নক্ষত্রের নাম । তেতাল্লিশের মন্বন্তরে জন্ম নেওয়া এ শিল্পীর লেখায় ক্ষুধা-দারিদ্র-সংগ্রাম উঠে আসাটাই ছিলো স্বাভাবিক। তাঁর লেখায় ছিলো গভীর জীবনবোধ, তীক্ষ্ণ পর্যবেক্ষণশক্তি ও ক্ষুরধার হিউমার। ক্ষুধায় কাতর রুগ্ন মানুষের বমি আর দুধভাতকে পাশাপাশি রেখে তিনি আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন ধনী-গরীবের ভেদাভেদ। তাঁর লেখা তাঁর মত করেই বলতে গেলে ঠিক যেনো আমাদের মস্তিস্কের কোটরে গিয়ে হাতুড়িপেটা করে। জীবনমুখী আবেদন, চরিত্র সৃষ্টিতে মুন্সীয়ানা ও আঞ্চলিক সংলাপের যথার্থ প্রয়োগ তাঁর লেখনীর উল্লেখযোগ্য দিক। ইলিয়াসের হাতের ছোঁয়ায় খিস্তি-খেউড়ও লাভ করতো শৈল্পিক রূপ।
জীবনভর লেখার জন্য হাপিত্যেশ করেননি, বরং লেখাই তাঁর পায়ে পায়ে ঘুরেছে। বণিকবুদ্ধির কাছে এক মূহুর্তের জন্যও বিকিয়ে দেননি তাঁর শিল্পসত্তা। তাই ইলিয়াসের সাহিত্য জীবন ২টি উপন্যাস, ৫টি গল্পগ্রন্থ ও ১টি প্রবন্ধ সংকলন ও বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত সাক্ষাৎকার সংকলনে এসে থেমে যায়। কিন্তু আমাদের দেশের সাহিত্যভান্ডারে তিনি হীরার খনি যার প্রতিটি লেখাই কালের বাজারে হীরার চেয়েও মূল্যবান।
Download
Rachanasamagra 01 - Akhtaruzzaman Elias in pdf
This is the largest online Bengali books reading library. In this site, you can read old Bengali books pdf. Also, Bengali ghost story books pdf free download. We have a collection of best Bengali books to read. We do provide kindle Bengali books free. We have the best Bengali books of all time. We hope you enjoy Bengali books online free reading.

চিলেকোঠার সেপাই ঊনসত্তরের গণ-অভ্যুত্থান


চিলেকোঠার সেপাই
ঊনসত্তরের গণ-অভ্যুত্থান
জাকির তালুকদার
ঊনসত্তরে জনগণের মধ্যে জাতীয়তাবাদের ব্যাপারটা থাকলেও শ্রেণীর ব্যাপারটা কিন্তু ক্রমেই বড় হয়ে উঠছিল। আওয়ামী লীগ এই শ্রেণীর ব্যাপারটাকে চাপা দিল বাঙালিত্বের ধুয়া তুলে। মুজিব জেল থেকে এসে প্রথমেই বললেন, 'আপনারা শান্ত হোন।' বললেন, 'আমরা সবাই বাঙালি।' চবড়ঢ়ষব যেভাবে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠছিল তাতে ভয় পেয়েছিলেন তাঁরা। আমার মনে আছে, রেকসে একদিন আড্ডা দিচ্ছিলাম, আমাদের পাশের টেবিলে এসে বসলেন খন্দকার মোশতাক। বাইরে তখন প্রচণ্ড মিছিল-মিটিং। মোশতাক খুব খেপে গিয়ে বলেছিলেন, 'এত রিষফ হওয়ার কোনো মানে হয়? এই রিষফ যড়ধৎংব-কে এখন কে সামলাবে?' এটাই হলো ঃুঢ়রপধষ বুর্জোয়া ঢ়ড়ষরঃরপং-এর কথা।
তারপর শেখ মুজিব যেদিন ৭ মার্চের বক্তৃৃতা দিয়ে ফিরছেন, আমি ওই শাহবাগের মোড়ে ভিড়ের ঠেলাঠেলিতে কিভাবে যেন শেখ মুজিবের গাড়ির একেবারে কাছে গিয়ে পেঁৗছেছিলাম, একেবারে মুজিবের গাড়ির জানালার পাশে। মুজিব জানালা দিয়ে ঢ়বড়ঢ়ষব-কে দেখছেন। সেদিন তাঁর চোখে আমি দেখেছিলাম ভয়, হড়ঃযরহম নঁঃ ভবধৎ। ভাবছেন বোধহয় এ লোকগুলোকে তিনি কোথায় নিয়ে যাবেন? কোনো ঢ়ষধহ তো তাঁর ছিল না। আর মানুষ তো তখন শুধু পাকিস্তান থেকেই মুক্ত হতে চায়নি, আরো অনেক কিছু চেয়েছিল।
[স্বকণ্ঠ। আখতারুজ্জামান ইলিয়াস]
ঊনসত্তরের গণ-অভ্যুত্থানের ওপর যেসব ইতিহাসগ্রন্থ লিখিত হয়েছে, সেগুলোতে হয়তো নির্ভুল তথ্য রয়েছে, কিন্তু সেগুলো পাঠ করে কেউ সেই দিনগুলোর উত্তাল মুহূর্তগুলোকে অনুভব করতে পারবেন না। কারণ লিখিত বিবরণ কোনো দিনই রক্তের দানায় দানায় ছড়িয়ে থাকা উত্তেজনা, উত্তাপ, আকাঙ্ক্ষা, ক্ষোভ, গ্লানি এবং আনন্দকে তুলে আনতে পারে না। বিশেষ করে প্রবন্ধ বা দলিল। তাই বলে দলিলের কোনো উপযোগিতা নেই, এমন কথা মূর্খ ছাড়া আর কেউ বলতে পারে না। কিন্তু আমরা ইতিহাসগ্রন্থ আকারে যেসব দলিল হাতে পেয়েছি, সেগুলোতে সুকৌশলে এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে ইলিয়াসকথিত মানুষের 'আরো অনেক কিছু' চাওয়ার বিষয়টিকে। এ ব্যাপারটিকে ধরতে পেরেছিলেন ইলিয়াস, এই শূন্যতা থেকে মুক্তির উপায় খুঁজছিলেন_খুঁজছিলেন এমন একটি গ্রন্থ, যেখানে ঊনসত্তরে মানুষের আত্মদানের এবং আকাঙ্ক্ষার সঠিক মাত্রাগুলো উপস্থাপিত হয়েছে। পাননি। পাননি বলে নিজেকেই লিখতে হলো তাঁর। আর ঔপন্যাসিকের কলমে এবং উপন্যাসের আঙ্গিকে বেরিয়ে এল বাঙালির ইতিহাসের অন্যতম শ্রেষ্ঠ আন্দোলনের হৃদস্পন্দন_চিলেকোঠার সেপাই।
উপন্যাসের শুরুতে পাওয়া যায় ওসমানের দেখা। শেষেও ওসমান। উপন্যাসে সবচেয়ে বেশি জায়গা দখল করে আছে যে চরিত্র, সে ওসমান। অথচ এই উপন্যাসের মূল ঘটনাপঞ্জির সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা সবচেয়ে কম। সে শুধু দেখে যায়। দেখেই যায়। পর্যবেক্ষণও করে না। কারণ পর্যবেক্ষণের সঙ্গে জড়িয়ে আছে পর্যালোচনা। গণ-আন্দোলন বা প্রায় ঘটতে যাওয়া গণ-অভ্যুত্থান নিয়ে কোনো পর্যালোচনা তাকে করতে দেখা যায়নি উপন্যাসের কোথাও। পুরান ঢাকায় আইয়ুব খানের অনুসারী মহাজন রহমতউল্লার বিল্ডিংয়ের চিলেকোঠার একমাত্র ঘরে তার বসবাস। সেখান থেকে সে দেখতে পায় বেবিট্যাঙ্,ি রিকশা, নারায়ণগঞ্জগামী বাসের পাশাপাশি হেঁটে চলা মানুষের ভিড় ও মিছিল। অফিসে যাওয়ার পথে বাহাদুর শাহ পার্কে জনসভা দেখে। পল্টনেও জনসভা দেখে। রেস্টুরেন্টে বসে রাজনৈতিকভাবে সক্রিয় বন্ধুদের কাছে শোনে আন্দোলন-সংগ্রামের কথা। কিন্তু নিজে থাকে ফেলে আসা বাপের চিন্তায়, এই বাড়ির দোতলার ভাড়াটের মেয়ে রানুর চিন্তায়, অন্য বন্ধুদের চিন্তায়। এমনও নয় যে সে সারা দেশে ঘটে যাওয়া ঘটনাবলি নিয়ে চিন্তিত নয়। বরং উল্টো। চিন্তা সে অনেক করে। চিন্তা না করে উপায় নেই। কারণ এমন প্রচণ্ড ঘটনাবলি ঢাকা তো বটেই, পূর্ববঙ্গের সব অস্তিত্ববান সত্তাকেই নাড়া খেতে বাধ্য করছে। সারা দিন তো বটে, রাতেও কোনো বিরাম নেই ঘটনা ঘটার। সে কারণে এমনকি ১০০ বছরেরও আগে বিদ্রোহী সিপাহিদের ফাঁসি দেওয়ার জন্য নবাব আবদুল গনিকে দিয়ে পোঁতানো পামগাছ বা সেসব পামগাছের বাচ্চারা মানুষের স্লোগানে ভালোভাবে ঘুমাতে পারে না। ফলে ওসমানের ঘুমও কমে যায়। ঘুমের বদলে সে জেগে জেগে দিবাস্বপ্ন দেখতে থাকে। ধীরে ধীরে সেই স্বপ্ন আবার বেশির ভাগই পরিণত হয় দুঃস্বপ্নে।
এই আন্দোলনের গন্তব্য কোনটা? এমন প্রশ্নও কেউ কেউ করে। আইয়ুব খান তথা পাকিস্তানিদের প্রতি মানুষের বিতৃষ্ণা এতটাই যে হোটেলের দেয়ালে আইয়ুব খানের ছবি ঝুলতে দেখলে মিছিলের মানুষ এসে সেই ছবি গুঁড়িয়ে দিয়ে যায়। কিন্তু এ ঘৃণা মানুষকে কি এনে দেবে? নিছক আইয়ুব খানের অপসারণ? স্বায়ত্তশাসন? ছয় দফা? স্বাধীনতা? কিন্তু মানুষের আকাঙ্ক্ষা তো আরো বেশি। সেই আকাঙ্ক্ষা আনোয়ারের প্রশ্নের মাধ্যমে উঠে আসে_'ভাষা, কালচার, চাকরি-বাকরিতে সমান অধিকার, আর্মিতে মেজর জেনারেলের পদ পাওয়া_এসব ভদ্রলোকের প্রবলেম। এই ইস্যুতে ভোটের রাইট পাওয়ার জন্য মানুষের এত বড় আপসার্জ হতে পারে?'
সাধারণ মানুষ এসব প্রশ্নের কোনো উত্তর না জেনেই ঝাঁপিয়ে পড়েছে আন্দোলনে। সেই সাধারণ মানুষের জলজ্যান্ত প্রতিনিধি হাড্ডি খিজির। শহরে খিজিররা যেভাবে ঝাঁপিয়ে পড়েছে, গ্রামে-গ্রামে সেভাবেই ঝাঁপিয়ে পড়েছে চেংটু, করমালি, আলী বঙ্রা। তাদের কর্মসূচি আরো বেশি অগ্রসর। তারা অনেক দূরের আইয়ুব খান, পাকিস্তানি বাহিনী, পিণ্ডির শোষণ যেমন দেখতে পায়, চোখের কাছে খয়বার গাজী, আফসার গাজীদের ভূমিকাও তেমন স্পষ্টভাবেই চিনতে শেখে। জানতে পারে যে খয়বার গাজীরাই হচ্ছে সেই সব মানুষ, যারা আইয়ুব খানদের আঞ্চলিক প্রতিনিধি। আইয়ুব খানরা যদি বিশালদেহী দিগন্তবিস্তারী জোঁক হয়, সেই জোঁকের মুখ হচ্ছে খয়বার গাজীদের মতো লোকরা। তারা সেই জোঁকের মুখে লবণ দেওয়ার কাজটাও করতে চায়। কিন্তু তাতে সমর্থন নেই আইয়ুববিরোধী ছয় দফার প্রবক্তা-নেতাদের। কারণ, তারাও খয়বার গাজীদেরই শ্রেণী-উত্তরসূরি। কী করে খয়বার গাজীরা? তারা মানুষের নামে অহেতুক মামলা ঠোকে, ভিটেমাটি কেড়ে নেয়, কেউ প্রতিবাদ করলে তার লাশ পাওয়া যায় মাঠে-নদীতে, এমনকি হাজার হাজার মানুষের চোখের সামনে নিজের অবাধ্য কিষানকে পর্যন্ত খুঁটির সঙ্গে বেঁধে পুড়িয়ে মারতে পারে। আদালতের মামলায় কোনো দিন খয়বার গাজীরা শাস্তি পায় না, মামলায় হারে না। কারণ, সরকারের আদালত তো তাদেরই আদালত। তাই আলী বঙ্রা, খয়বার গাজীরা গণ-আদালত বসাতে চায়। সেখানে বিচার করতে চায় খয়বার গাজীর মতো মানুষদের। বিচার করতে চাওয়ার কথা আসছে এত বছর পরে, কারণ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। মানুষ প্রস্তুত হয়েছে। যমুনা নদীতে ঘোড়ার ডাক শোনা যাচ্ছে। 'বড় ধরনের বালা-মুসিবত, সংকট, বিপদ-আপদ, দুর্যোগ, বিপর্যয় সামনে থাকলে যমুনার মধ্যে দেড় শ দুই শ ঘোড়া সংকেত দেয়।' সেই ফকির মজনু শাহের সময় থেকে দিয়ে আসছে। এবারের মুসিবত খয়বার গাজীদের। ডাকাত-মারা চরের বাথান তার লুট হয়, তার প্রধান অনুচর হোসেন আলী নিহত হয় বিক্ষুব্ধ মানুষের হাতে। এখন গণ-আদালতে বিচার হবে তার। গ্রামের সংগঠিত মানুষ প্রত্যয়ের সঙ্গে ঘোষণা করে, 'এইবার বুঝবি মানুষের হাতে মরতে কেমন লাগে। বেটা এখান থেকে কলকাঠি নাড়ো, মানুষের গরু চুরি করে তার কাছ থেকেই জরিমানা আদায় করো। কারো জমিতে তারা বর্গা দিতে না পারে সেই ফন্দি আঁটো? সবাই এসে তোমার পায়ে পড়ুক, তুমি ইচ্ছামতো মানুষের ভিটাটুকু পর্যন্ত কবজা করে তাকে তোমার গোলাম বানাও!_এইবার? এইবার ভেতর থেকে ভাঙতে শুরু করেছে, ওপরটা আপনাআপনিই ধসে পড়তে কতক্ষণ?
ঊনসত্তরের গণ-অভ্যুত্থানের আসল চেহারা তো এইখানে, এ বৈরাগীর ভিটায়। মানুষ ভেঙে পড়েছে সেখানে। ভিড় দেখে মনে হবে, 'গোটিয়া, তালপোতা, পদুমশহর, চিথুলিয়া, উত্তরের চন্দনদহ, দরগাতলা, কর্নিবাড়ী, পশ্চিমের কড়িতলা, দরগাতলা, কামালপুর, গোলাবাড়ী_কোনো গ্রামে পুরুষ মানুষ আজ ঘরে নেই।' সেখানে গণ-আদালত বসেছে। সেখানে সর্বসম্মতিক্রমে খয়বার গাজীকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। বৃহস্পতিবারের রাতে বিচার বসেছে। সে সবার কাছে সময় চায়। আগামীকাল শুক্রবার জীবনের শেষ জুমার নামাজটি আদায় করার পর তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হোক। আনোয়ার বোঝে সে সময় চেয়ে নিচ্ছে। সময় পেলে ফাঁদ কেটে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করবে, সুযোগ বের করে নেবে ঠিকই। কিন্তু ওই জুমার নামাজের বাসনা! মুহূর্তের মধ্যেই ভিজে যায় মানুষের মন। আহা তার জীবনের শেষ ইচ্ছাটা পূরণ করতে দেওয়া হোক। আলী বঙ্ ব্যাপারটা বোঝাতে গিয়েও ব্যর্থ হয়। মানুষ খয়বার গাজীর মৃত্যুদণ্ডের ব্যাপারেও যেমন একমত, তেমনই তাকে শেষবারের মতো জুমার নামাজ পড়ার সুযোগদানের ব্যাপারেও একমত। ফলাফল_খয়বার গাজীর পালিয়ে যাওয়া। নিজের লোকদের গুছিয়ে নেওয়া, প্রশাসনের সাহায্যে আলী বঙ্কে এলাকাছাড়া করা এবং চেংটুর মৃত্যু। তার পরই দেখা যায়, মানুষ নিয়মতান্ত্রিক রাজনীতিতে ফিরে গেছে। বিরোধী দলের নেতা হয়েছে খয়বার গাজীর লম্পট-মদারু ভাতিজা আফসার গাজী। ক্ষমতার বলয় সেই সব আগের শ্রেণীর মানুষের হাতেই।
তবে নিজেকেসহ সবাইকে আবারও মনে করিয়ে দিই যে 'চিলেকোঠার সেপাই' ইতিহাস নয়_উপন্যাস। বাংলা ভাষার গুটিকয় সফল উপন্যাসের মধ্যে অন্যতম একটি উপন্যাস। কিন্তু গণ-অভ্যুত্থানের ইতিহাসের জন্য আমাদের দ্বারস্থ হতে হয় সেই 'চিলেকোঠার সেপাই'-এর। কারণ? ওই যে অ্যাঙ্গেলস বলেছিলেন, ম্যাকবেথ নাটকের মধ্যে ওই সময়ের চালচিত্র যত নিখুঁতভাবে পাওয়া যায়, সব ইংরেজ ইতিহাসবিদের সব পুস্তক একত্র করলেও সেটা পাওয়া যাবে না।
এখানেই তো সত্যিকারের সাহিত্যের শ্রেষ্ঠত্ব।


নতুন বই ইমেইলে পেতে হলে

This is the largest online Bengali books reading library. In this site, you can read old Bengali books pdf. Also, Bengali ghost story books pdf free download. We have a collection of best Bengali books to read. We do provide kindle Bengali books free. We have the best Bengali books of all time. We hope you enjoy Bengali books online free reading.

Authors

 
Support : Visit our support page.
Copyright © 2021. Amarboi.com - All Rights Reserved.
Website Published by Amarboi.com
Proudly powered by Blogger.com